সোমবার, ৩০ নভেম্বর, ২০২০
ম্যারাডোনার স্মৃতিতে দুই বোন হলেন ম্যারা ডোনা

ফুটবল জাদুকর ম্যারাডোনার বিদায়ে কাঁদছে বিশ্ব। শোকে স্তব্ধ ফুটবলপ্রেমীরা। মাঠের দ্যুতি ছড়ানো এই নক্ষত্রকে হারিয়ে বাকরুদ্ধ ভক্ত-সমর্থকরা। কিন্তু চলে যাওয়া মানেই তো প্রস্থান নয়। তাই হয়তো প্রিয় তারকার স্মৃতি ধরে রাখতে ভক্তদের নানা আয়োজন। স্মৃতির মানসপটে ম্যারাডোনাকে ধরে রাখার কতশত প্রচেষ্টা। ম্যারাডোনার বেলায় এটাই হয়তো স্বাভাবিক। কেননা তিনি যে ফুটবল ঈশ্বর। ফুটবলের রাজপুত্র, কিংবদন্তি।  

আর্জেন্টাইন এ কিংবদন্তি হয়তো দীর্ঘকাল মানুষের মনে থাকবেন। তবুও ম্যারাডোনার স্মৃতি বাঁচিয়ে রাখতে সমর্থকদের ভিন্নধর্মী আয়োজন অবাক করার মতোই। আর্জেন্টিনার বুয়েন্স আয়ার্সের এক পরিবারে দেখা গেল তারই নিদর্শন। ম্যারাডোনার অন্ধ ভক্ত বুয়েন্স আয়োর্সের এক বাবা তার দুই যমজ কন্যার নাম রাখলেন ম্যারাডোনার নামে। ম্যারাডোনার মৃত্যুর পর নয় বছরের দুই শিশুকন্যাকে এই কিংবদন্তির নামে ডাকা শুরু করেছেন তিনি। 

ম্যারাডোনা নামকে দুই ভাগে ভাগ করে একজনের নাম রেখেছেন ম্যারা আর অন্যজনের নাম দিয়েছেন ডোনা। শুধু তাই না ‘ম্যারা’ এবং ‘ডোনা’ দুই নামে দুটি জার্সিও তৈরি করে দিয়েছেন তাদের। আর তাদের জার্সি নম্বরও ১০।   

তবে যমজ মেয়েদের নামকরণটা হঠাৎ করেই রাখা বিষয়টি এমন নয়। বাবা ওয়ালটার জানান, ১৯৯০'র বিশ্বকাপে ম্যারাডোনার খেলা দেখে আমি তার ভক্ত হয়ে যাই। ফাইনালে পশ্চিম জার্মানির কাছে হেরে যাওয়ার পর তার কান্না দেখেছি। ওই বিশ্বকাপের পর আমার স্ত্রী স্টেলা ম্যারিসের সঙ্গে প্রথম সাক্ষাতে আমরা ঠিক করে রেখেছিলাম ম্যারাডোনার নামে নাম রাখব আমাদের সন্তানদের।   

 

এই দুই যমজ কন্যার মধ্যে ‘ম্যারা' বয়সে এক মিনিটের বড়। তাই নামের প্রথম অংশ তাকেই দেওয়া হয়েছে। ফুটবল ঈশ্বর ম্যারাডোনা সম্পর্কে ম্যারা জানায়, নতুন নামে আমি অনেক আনন্দিত। এটা জেনে ভালো লাগছে যে, এই নামে বিখ্যাত এক কিংবদন্তি ফুটবলার ছিলেন। যিনি বিশ্বব্যাপী জনপ্রিয় ছিলেন। ছোট বোন ডোনা জানায়, ম্যারাডোনার মৃত্যুর খবর শুনেছি। এটা খুবই দুঃখের বিষয়। তিনি খুব ভালো ফুটবলার ছিলেন শুনেছি। আমার বিশ্বাস হয় না, তিনি আর আমাদের মাঝে নেই।

মুরগির খামার দিচ্ছেন ধোনি

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছেন ভারতের সাবেক অধিনায়ক মাহেন্দ্র সিং ধোনি। সম্প্রতি আইপিএল আসরও শেষ করলেন। কিন্তু ক্রিকেট না থাকার অবসরে কী করছেন? এমন কৌতূহল ভক্ত-সমর্থকদের মাঝে থাকাটাই স্বাভাবিক। 

উত্তর জানান গেল, ক্রিকেটের পাশাপাশি এবার অভিনব উদ্যোগ নিয়েছেন ধোনি। মুরগির খামার তৈরির উদ্যোগ নিয়েছেন ভারতের সাবেক বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক মাহেন্দ্র সিং ধোনি। ভারতীয় গণমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে এ তথ্য। 

ভারতের বিখ্যাত কালো রঙের ‘কড়কনাথ’ প্রজাতির মুরগির খামার শুরু করতে যাচ্ছেন ধোনি। ইতোমধ্যে ২ হাজার মুরগির অর্ডারও করেছেন ধোনি। বিনোদ মেন্দার নামে স্থানীয় এক আদিবাসী খামারির কাছে এ অর্ডার দিয়েছেন তিনি। ওই খামারি জানান, ডিসেম্বরের মাঝামাঝি সময়ে ধোনির খামারে পৌঁছে দেবেন মুরগি।

এদিকে কড়কনাথ মুরগি গবেষণা কেন্দ্রের গবেষক আইএস তোমার জানান, কড়কনাথ মুরগি খেতে অত্যন্ত সুস্বাদু। এটি অতিরিক্ত চর্বি এবং কোলেস্টেরলমুক্ত।  

আমার মতন ভুল যেনো কেউ না করেঃ সাকিব

সাকিব আল হাসান ফিরছেন। ক্রিকেট মাঠে ফিরতে পারবেন যে কোনো সময়। তার আগে ফিরছেন দেশে। তারও আগে যুক্তরাষ্ট্রে বসে গণমাধ্যম ও সমর্থকদের করা বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। সেখানেই বলেছেন, তার মতো ভুল যেন আর কেউ না করে। 

সাকিব বলেন, নিষেধাজ্ঞা পাওয়ার পর অবশ্যই আফসোস হয়েছে এবং আমি অনুতপ্তও হয়েছি। আমার এরকম একটা মিসটেক করা উচিত হয়নি। এখান থেকে আমি বড় একটা শিক্ষা নিয়েছি। আমাকে যে শাস্তি দিয়েছে সেটাই আমি মাথা পেতে নিয়েছি। আমি চাই এই ভুল যেন কেউ না করে। সবাইকে সাবধানী হতে হবে। এ ধরণের কোনো প্রস্তাব পেলে সঙ্গে সঙ্গে আইসিসি বা বিসিবিকে জানাতে হবে। বিতর্ক কেউ অযথা চায় না। তবে, আমি সবসময় বিতর্ক এড়াতে পারিনি। সামনের সময়টাতে চাইবো, যাতে এ ধরণের ঝামেলায় না পড়ি।

২০২৩ সালের মধ্যে তিনটি বিশ্বকাপ খেলবেন সাকিব। তাই শুধু নিজেকে নিয়ে নয়। বাংলাদেশ দল নিয়েও আছে তার পরিকল্পনা। 

তিনি বলেন, সিনিয়র-জুনিয়র বলে কাউকে মূল্যায়ন করিনা। যারা পারফর্ম করবে, তাদেরকেই সুযোগ দেয়া উচিত।

নিষেধাজ্ঞার এই কঠিন সময়ে যারা তার পাশে দাঁড়িয়েছেন, নিজের সেসব শুভাকাঙ্খী এবং সমর্থকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন সাকিব আল হাসান। কথা দিয়েছেন আস্থার প্রতিদান দেবেন মাঠে পারফরম্যান্সের মধ্য দিয়ে।

তিনি বলেন, আমি যতোটুকু আশা করেছিলাম তারচেয়েও অনেক বেশি সমর্থন পেয়েছি ভক্ত এবং বাংলাদেশের সাংবাদিকদের কাছ থেকে। আমি আশা করি সবার এমন ভালোবাসার প্রতিদান দিতে পারবো মাঠে পারফর্ম করে। 

অবশেষে করোনা মুক্ত সি আর সেভেন

অবশেষে করোনা মুক্ত হলেন য়্যুভেন্তাস ফরোয়ার্ড ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। চতুর্থ দফার টেস্টে তার রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। নিজেদের অফিসিয়াল ওয়েব সাইটে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে ক্লাব কর্তৃপক্ষ।

উয়েফা নেশন্স লিগের ম্যাচের পর গেল ১৩ অক্টোবর করোনা পজিটিভ হন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। পরদিনই লিসবন থেকে তুরিনে ফিরে আসেন পর্তুগিজ তারকা। নিয়ম মেনে প্রথম টেস্টের ১০ দিন পর কোরনা টেস্ট করান তিনি। কিন্তু তার রিপোর্ট পজিটিভ আসে।

এরপর ২৭ অক্টোবর তৃতীয় বারের মত কভিড টেস্ট করান তিনি। তাতেও রোনালদোর রিপোর্ট পজিটিভ আসলে বিষয়টি আলোচনার জন্ম দেয়। যদিও শারিরীক ভাবে কোন সমস্যাই ছিলো না তার।

শুক্রবার চতুর্থ বারের মত করোনা টেস্ট করানো হয় সি আর সেভেনের। সেখানে তার রিপোর্ট নেগেটিভ আসে বলে নিশ্চিত করে য়্যুভেন্তাস।

বরখাস্ত হতে পারেন জিদান

এমনকি শাখতার দোনেস্কের বিপক্ষে ম্যাচটার আগেও রিয়াল মাদ্রিদ কর্তৃপক্ষ নিশ্চিত করেছিল, জিনেদিন জিদানের অবস্থান পরিষ্কার। তাকে নিয়ে কারো কোনো সন্দেহ নেই। কাদিজের বিপক্ষে হারটা একটা দুর্ঘটনা। কোচের ওপর তাদের অগাধ আস্থা আছে।

শাখতারের বিপক্ষে ম্যাচের প্রথমার্ধ্ব যেতে না যেতেই পাশার দান পুরোপুরি উল্টে যায়। বিরতির আগে ৩-০ তে পিছিয়ে থাকায়, একের পর এক বিরতিহীন ফোনকল আসতে থাকে জিদানের ফোনে। ক্লাব সভাপতি ফ্লোরেন্তিনো পেরেজ সবসময়ই জিদানের ওপর আস্থা রাখলেও, পরপর দুই ম্যাচে হারের পর তারও বিশ্বাসের পালে ধাক্কা লেগেছে স্বাভাবিকভাবেই।

রিয়ালের ইতিহাসের অন্যতম সেরা ফুটবলার ও কোচ জিনেদিন জিদান ক্যারিয়ারের চরমতম দুঃসময় কাটাচ্ছেন এবার। বেশ বাজেভাবে শুরু হয়েছে মৌসুমটা। ক্লাবটিকে কোচ হিসেবে ৩ বার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতানো, সবশেষ মৌসুমে বেশ পিছিয়ে থেকেও লিগ জেতানোর সুখস্মৃতিগুলোও চাপা পড়ে যাচ্ছে এবারের বাজে শুরুর কাছে। বিশেষ করে দীর্ঘদিন পর লিগে উঠে আসা কাদিজের কাছে হারের পর, চ্যাম্পিয়ন্স লিগে নিজেদের ১ম ম্যাচে শাখতার দোনেস্কের কাছে হারের চড়া মাশুল দিতে হতে পারে এই ফ্রেঞ্চ কিংবদন্তিকে। এরইমধ্যে স্প্যানিশ গণমাধ্যমে জোর গুঞ্জন, বরখাস্ত করা হতে পারে জিদানকে। 

এরইমধ্যে জিদানের বিকল্পও খোঁজা শুরু হয়ে গেছে। ইংলিশ ক্লাব টটেনহ্যাম হটস্পারের সাবেক কোচ মৌরিজিও পচেত্তিনি ক্লাব কর্তৃপক্ষের পছন্দের শীর্ষে। জিদানের বিকল্প হিসেবে শোনা যাচ্ছে ম্যাসিমিলানো অ্যালেগ্রির নামও। আবার রিয়াল কিংবদন্তি রাউল গঞ্জালেসও আছেন আলোচনায়। 

অবশ্য স্প্যানিশ ওয়েবসাইট ওকদিয়ারিও দাবি করেছে, এখন পর্যন্ত জিদানের চাকরীটা নিরাপদ। তবে সেটি যেকোনো সময়ে ঝুলে যেতে পারে। অন্যান্য গণমাধ্যমগুলো বলছে, এল ক্ল্যাসিকোয় চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনার বিপক্ষে ম্যাচে জয় পেলেই কেবল চাকরীটা টিকে যাবে ক্লাবের সফলতম এই কোচের।

গেল মৌসুমে নিজেদের মাঠ সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে বার্সেলোনাকে ২-০ গোলে হারিয়েছিল রিয়াল। এবার বার্সার মাঠে খেলা হলেও, একই রেজাল্ট প্রত্যাশা করছে মাদ্রিদিস্তারা। জিদানের জন্য স্বস্তির বিষয় হচ্ছে, ক্যাম্প ন্যু'তে কখনো হারের মুখ দেখেননি তিনি। এবার তার ব্যত্যয় ঘটার সুযোগই নেই তার সামনে!

আবার তার দুর্ভাগ্য, কঠিন পরিস্থিতির মুখে যখন দাঁড়িয়ে তিনি, তখনই তাকে মুখোমুখি হতে হচ্ছে পরাশক্তি বার্সেলোনার! পরপর তিন ম্যাচে হারের পরিণতি যে ভালো হবেনা, সেটি একপ্রকার জানা হয়ে গেছে তার। ক্লাবেও চলছে জোরগুঞ্জন। জানা গেছে, রিয়াল সমর্থকদেরও বড় একটি অংশ আর ডাগআউটে দেখতে চায় না জিদানকে। সবমিলিয়ে দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে ফ্রেঞ্চ কিংবদন্তির।

শাখতারের বিপক্ষে ম্যাচের পর অবশ্য বরখাস্তের সম্ভাবনার বিষয়ে প্রশ্ন করা হয় জিদানকে। বিমর্ষ মুখে তিনি জানান, তাতে হয়তো সাময়িক স্বস্তি মিলবে তবে পরিস্থিতি বদলাবেনা। আমার মনে হয়না, বরখাস্ত করাই একমাত্র সমাধান। এ ধরণের পরিস্থিতি সামাল দেয়ার সামর্থ্য আমার আছে।

দেখা যাক, চাকরী বাঁচাতে সামর্থ্যের সর্বোচ্চ ব্যবহার করতে পারেন কিনা জিজু!

বহুল প্রতিক্ষিতো এল ক্ল্যাসিকো শনিবার

মৌসুমের প্রথম এল ক্ল্যাসিকোতে মুখোমুখি হতে যাচ্ছে বার্সেলোনা ও রিয়াল মাদ্রিদ। লিগে শেষ ম্যাচে হারলেও, চ্যাম্পিয়ন্স লিগে বড় জয় পাওয়ায় আত্মবিশ্বাসী স্বাগতিক কাতালানরা। আর টানা দুই হারে বড় চ্যালেঞ্জের মুখে মাদ্রিদিস্তারা। ক্যাম্প ন্যু'তে ম্যাচটা শুরু হবে শনিবার রাত ৮টায়। 

উপমহাদেশে লা-লিগার দর্শকরা ম্যাচ দেখেন ফেসবুক লাইভে। তাই টিভির রিমোট কন্ট্রোলের ওপর চাপ কমেছে। তবে রাত ৮টায় বাড়তি চাপে থাকবে এ অঞ্চলের অন্তর্জালে। কারণ মৌসুমের প্রথম এল ক্ল্যাসিকোটা মিস করতে চাইবেন না ফুটবলপ্রেমীরা। 

স্প্যানিশ ধ্রুপদী লড়াইয়ের আগে চোখ বুলানো যাক পরিসংখ্যানে। ইতিহাসে ২৪৪ বার প্রতিযোগিতামূলক খেলায় মুখোমুখি হয়েছে দু'দল। ৫২ বার অমীমাংসীত ছিলো ম্যাচ। নিক্তিটাও নেই কারও পক্ষে। বার্সা-রিয়াল উভয়ের জয়ের সংখ্যাও সমান ৯৬টি করে। 

অবশ্য মঞ্চটা যেহেতু লা-লিগা, তাই ইঞ্চিখানেক এগিয়ে মাদ্রিদিস্তানরা। স্প্যানিশ টপ ফ্লাইটে ১৮১ দেখায় কাতালানদের ৭২ জয়ের বিপরীতে একটা জয় বেশি আছে লসব্লাঙ্কোদের। যদিও সেই স্বস্তিটা উবে যেতে পারে একজন লিওনেল মেসির সামনে। কারণ এল ক্লাসিকোয় সর্বোচ্চ ২৬ বার বল জালবন্দী করার রেকর্ডটা এসেছে এই আর্জেন্টাইনের বুট থেকে।  

চলতি মৌসুমে ৫ ম্যাচে ১০ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলের তিন নম্বরে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদ। যদিও বার্নাব্যুতে মার্চে সবশেষ দেখায় ২-০ গোলের জয় তুলেছিলো মাদ্রিদ জায়ান্টরা, তারপরও খুব একটা স্বস্তিতে নেই জিদান। কারণটা পরিষ্কার। লা-লিগায় শেষ ম্যাচে অখ্যাত কাদিজের কাছে হেরে এসেছে জিদান বাহিনী। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ওপেনারে স্বাগতিক হয়েও, ৩-২ গোলের ব্যবধানে হেরেছে শাখতার দোনেস্কের কাছে। 

জিজুর চিন্তা আরও বাড়বে দলের ইনজুরি তালিকায় চোখ রাখলে। হ্যাজার্ড-কারভাহালসহ মোট ৫ সদস্য নিশ্চিতভাবেই খেলতে পারছেননা গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচটা। ফিরতে পারেন কাপ্তান রামোস। মদ্রিচ-ক্যাসিমিরোদের দায়িত্ব নিয়ে খেলতে হবে পুরো সময়টা।      

ইনজুরির সমস্যা আছে কাতালান শিবিরেও। রক্ষণে উমতিতি নেই। গোলপোস্টেও নাম্বার ওয়ান স্টেগান ভুগছেন হাঁটুর ইনজুরিতে। তবে পিকে-লেংলেট-ডি ইয়ংরা ভালো বোঝাপড়া দেখিয়েছেন শেষ ম্যাচে। ফেরেঙ্ক ভারোসের বিপক্ষে ৫-১ ব্যবধানের জয়ে মেসি-আনসু ফাতি-কৌতিনিয়ো-পেদ্রি আর দেম্বেলে, ৫ জনই নাম তুলেছেন স্কোর শিটে। আত্মবিশ্বাসটা তাই তুঙ্গে বার্সেলোনার। মৌসুমে ৭ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের নয়ে থাকলেও ম্যাচ খেলেছে ৪টা। 

পরিসংখ্যানে সবমিলিয়ে আবারও মাদ্রিদের এগিয়ে যাওয়া নাকি লা-লিগায় কাঁধে কাঁধ মেলাবে বার্সা, তার অপেক্ষায় প্রহর গুণছে সমর্থকরা।

যুক্তরাষ্ট্রে ঘাস কাটছেন সাকিব আল হাসান

সাকিবের নিষেধাজ্ঞা শেষ হতে চলেছে চলতি মাসেই। আর বাকি মাত্র কয়েকটা দিন। তারপরেই মুক্তি মিলবে এই টাইগার অলরাউন্ডারের।  ২৯ অক্টোবর শেষ হবে আইসিসির নিষেধাজ্ঞা। 
 

তবে ক্রিকেটে ফিরতে লাগবে ফিটনেস। মাঠে খেলা না থাকলেও ফিটনেস ধরে রাখতে হবে। আর তাই নিজেকে ধরে রাখতে এবার ঘাস কাটা শুরু করেছেন এই অলরাউন্ডার। 

যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানরত সাকিব বাসার সামনে মেশিন দিয়ে ঘাস কাটছেন। এমন একটি ছবি নিজের ফেসবুকে পোস্ট করেছেন সাকিবপত্নী শিশির। ফিটনেস ধরে রাখার জন্য সাকিব এই কাজ করছেন বলে লিখেছেন তিনি। শিশির লিখেছেন, ‘এই সময় ফিটনেস ধরে রাখতে হবে।’     

নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে ফেরার কথা ছিল সাকিবের। এর জন্য নিজেকে প্রস্তুত করতে যুক্তরাষ্ট্র থেকে বাংলাদেশে ফিরে বিকেএসপিতে অনুশীলনও শুরু করেছিলেন এই অলরাউন্ডার। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সিরিজ স্থগিত হয় লঙ্কা সিরিজ।

যে কারণে আবারও যুক্তরাষ্ট্রে পরিবারের কাছে ফিরে গেছেন টাইগারদের সাবেক এই অধিনায়ক। আগামী নভেম্বরের কর্পোরেট লিগের মাধ্যমে মাঠে ফেরার কথা রয়েছে সাকিবের।

বিপিএল হচ্ছে না এ বছর

মহামারি করোনাভাইরাস এবার কেড়ে নিল বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল)। এ বছর টুর্নামেন্টটি আয়োজন করা সম্ভব হচ্ছে না, জানিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

দীর্ঘ ৭ মাস পর অবশেষে দেশের মাঠে ফিরেছে ক্রিকেট। প্রেসিডেন্টস কাপ নামে একটি তিন জাতি ওয়ানডে সিরিজের আয়োজন করেছে বিসিবি। মূলত শ্রীলঙ্কা সিরিজ স্থগিত হওয়ায় ক্রিকেটারদের খেলার মধ্যে রাখতেই এমন উদ্যোগ।

কেবল এই টুর্নামেন্টই নয়। আগামী মাসে একটি করপোরেট লিগ টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট আয়োজন করতে চায় বিসিবি। এরই মধ্যে সেটি নিয়ে পরিকল্পনা শুরু করেছে তারা। এসবের কারণেই সম্ভব হচ্ছে না এবারের বিপিএল আয়োজন।

বিপিএলের অন্যতম আকর্ষণ বিদেশি তারকা ক্রিকেটাররা। তবে করোনার আগ্রাসনে তারকাদের পাওয়া নিয়ে শঙ্কা তৈরি হয়েছে। সবমিলিয়ে এ বছর যে বিপিএল হচ্ছে না, সেটি নিশ্চিত করলেন বিসিবি বস।

রোববার (১১ অক্টোবর) গণমাধ্যমের সামনে নাজমুল হাসান পাপন বলেন, আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি বিপিএল এ বছর হবে না। কারণ বিদেশি ক্রিকেটারদের আসা-যাওয়াসহ অনেক বিষয় আছে। আগামী বছর আয়োজন করা যায় কিনা সে বিষয়ে আমরা আবারও আলোচনায় বসব।  

গক বছর ডিসেম্বর মাসে শুরু হয় বিপিএল। ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো লাভের অঙ্ক চাওয়ায়, বিসিবি নিজ উদ্যোগেই আয়োজন করে সেবার। আগামীতে বিপিএল হলে সেটি কি ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্ট থাকবে নাকি গত বছরের মতোই হবে, সেটি এখনো নিশ্চিত করতে পারেননি বিসিবি সভাপতি।

পাপন বলেন, ফ্র্যাঞ্চাইজি থাকবে নাকি গতবারের মতো করব, সে বিষয়ে আমরা এখনো সিদ্ধান্ত নেইনি। 

ধর্ষণ মামলায় বিচার শুরু হতে যাচ্ছে রোনালদোর

পর্তুগিজ ফুটবল তারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। বিশ্বজুড়ে হাজারো ফুটবলপ্রেমীর হৃদয়ে জায়গা করে আছেন। জাদুকরী ছন্দ আর নিজস্ব কারিশমায় ফুটবল ইতিহাসে নিজেকে নিয়ে গেছেন অনন্য উচ্চতায়। সময়ের সেরা ফুটবলারদের একজন এই তারকা ফুটবলার। তবে খ্যাতির বিড়ম্বনা বলেও কথা আছে। যশ, খ্যাতি, জনপ্রিয়তার মধ্যেও নানা ঘটনায় হয়েছেন সমালোচিত।

তেমনই একটি ঘটনা ঘটে প্রায় ১০ বছর আগে। রোনালদোর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ তুলেছিলেন এক নারী। যুক্তরাষ্ট্রের লাস ভেগাসের একটি হোটেলে ধর্ষণ করেছেন বলে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছিলেন এক নারী। ২০১০ সালের ওই ঘটনা এর আগেও বেশ কয়েকবার আলোচনায় এসেছিল। রোনালদোর বিরুদ্ধে এ নিয়ে ধর্ষণ মামলাও দায়ের হয়েছিল। শুনানিও হয়েছিল।

আবারও যুক্তরাষ্ট্রে রোনালদোর বিরুদ্ধে সেই ধর্ষণ মামলার শুনানি শুরু হতে যাচ্ছে। নেভাদায় ফেডারেল জজের সামনে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে এই শুনানির। যে শুনানিতে উপস্থিত থাকতে হতে পারে রোনালদোকে। 

এখনো শুনানির নির্দিষ্ট কোনো তারিখ নির্ধারণ করা হয়নি। তবে জজ জেনিফার ডোরসি বলেন, ‘দুই পক্ষের যুক্তি-তর্ক শুনেই সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। ধর্ষণের অভিযোগ তোলা ক্যাথেরিন মায়োরগার কথাও শোনা হবে।’

লাস ভেগাসের হোটেলে রোনালদোর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কের বিনিময়ে সেই নারীকে এক প্রতিনিধির মাধ্যমে ৩ লাখ ৭৫ হাজার ডলার দিয়েছিলেন রোনালদো।

তবে রোনালদোর অ্যাটর্নি পিটার ক্রিস্টিয়ানসেন এ বিষয়ে সাংবাদিকদের কাছে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি। এমনকি অভিযুক্তের আইনজীবীও কোনো মন্তব্য করেননি।