সোমবার, ৩০ নভেম্বর, ২০২০
যেভাবে ৫ মিনিটেই অনলাইনে পাবেন জমির আরএস খতিয়ান

জমির আরএস খতিয়ান। যাদের জমি আছে তাদের জন্য এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ দলিল, যা দ্বারা জমি পরিমাপ বা চিহিৃত করা হয়। আমরা অনেক সময় এই গুরুত্বপূর্ণ দলিলের সমস্যায় পড়ি। অনেকে জমির এই আরএস খতিয়ান হারিয়ে ফেলি আবার অনেকের জমির আরএস খতিয়ান থাকে না, যা পরবর্তীতে কোর্টের মাধ্যমে উঠানো লাগে। সবমিলিয়ে অনেকেই এই ঝামেলায় পড়ে যান। 

যারা জমির এই আরএস খতিয়ান হারিয়ে ফেলেছেন অথবা যাদের জমির আরএস খতিয়ান নেই তাদের জন্য সুখবর। মাত্র দুই থেকে পাঁচ মিনিটের মধ্যেই অনলাইনে পাওয়া যাবে জমির এই গুরুত্বপূর্ণ দলিল। আসুন জেনে নেই মাত্র পাঁচ মিনিটেই যেভাবে অনলাইনে পাবেন জমির আরএস খতিয়ান।

ভূমির পরিমাপ পদ্ধতি সঠিক এবং সহজ করার জন্য ফরাসি বিজ্ঞানী এডমন্ড গান্টা ইস্পাত দ্বারা এক ধরনের শিকল আবিষ্কার করেন। পরবর্তীতে তার নাম অনুসারেই এই শিকলের নামকরণ করা হয় গান্টার শিকল। আমাদের দেশে গান্টার শিকল দ্বারা জমি জরিপ অত্যন্ত জনপ্রিয়।

‘আরএস খতিয়ান’ অ্যাপ্লিকেশনটি মূলত ‘জমি’ নামক জাতীয় ভূমি-তথ্য ও সেবা অনলাইন প্ল্যাটফর্মের (www.land.gov.bd) একটি অংশ।

এ ছাড়া মোবাইল অ্যাপ, ‘rsk.land.gov.bd’ এবং ‘drroffice.land.gov.bd’ ওয়েবসাইটের মাধ্যমেও বাংলাদেশের যে কোনো নাগরিক ঘরে বসে অথবা নিকটস্থ যে কোনো ডিজিটাল সেন্টারে অথবা পৃথিবীর যে কোনো প্রান্ত থেকে নিজের জমিসংক্রান্ত তথ্য দেখার সুযোগ পাবেন।

অনলাইনে খতিয়ান সংগ্রহের জন্য নির্ধারিত বিভাগ, জেলা, উপজেলা ও মৌজা বাছাই করতে হবে। খতিয়ান নম্বর বা দাগ নম্বর বা মালিকানা নাম বা পিতা বা স্বামীর নাম দিয়ে খতিয়ান খোঁজা যাবে।

এ ছাড়া খতিয়ানের সার্টিফায়েড কপির জন্য অনলাইনে আবেদন, আবেদন নিষ্পত্তি বিষয়ে ট্র্যাকিং ও কর্তৃপক্ষ কর্তৃক মনিটরিং করার সুবিধা রয়েছে এই অনলাইন ব্যবস্থায়।

অনলাইনে খতিয়ানের কপি পেতে অনলাইনে আবেদনের সময় নাগরিকের নাম, পরিচয়পত্র নম্বর (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) ও ফোন নম্বর ইত্যাদি তথ্য দিতে হবে। নির্ধারিত তথ্য দেওয়ার পর মোবাইল ব্যাংকিং বা অনলাইন ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে খতিয়ানের জন্য নির্ধারিত ফি দিতে হবে। ফি পরিশোধের পর অনলাইন কপি সংগ্রহ করতে চাইলে সরাসরি অনলাইন কপি প্রিন্ট করে নেওয়া যাবে।

সার্টিফায়েড কপি পাওয়ার ক্ষেত্রে আবেদনের সময় নাগরিকের নাম, পরিচয়পত্র নম্বর, ফোন নম্বর দিতে হবে। তথ্য প্রদানের পর মোবাইল ব্যাংকিং বা অনলাইন ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে খতিয়ানের জন্য ফি দিতে হবে। ফি দেওয়ার পর সার্টিফাইড কপির জন্য নাম, জাতীয় পরিচয়পত্র, ইমেইল, মোবাইল নম্বর, ট্রানজেকশন আইডি ও ডাকযোগে যোগাযোগের ঠিকানা দিয়ে অনলাইনে আবেদন করতে হবে। এরপর সংশ্লিষ্ট জেলা অফিস থেকে বা আবেদনকারীর প্রত্যাশিত ঠিকানায় ডাকযোগে নির্দিষ্ট দিনের মধ্যে আরএস খতিয়ানের সার্টিফায়েড কপি সরবরাহ করা হবে।

বক্তব্য না দিয়েই ফেরত গেলেন মামুনুল হক

হেফাজেত ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক হাটহাজারী আসলেও ‌প্রশানের ‘অনুরোধে’ মাহফিলে বক্তব্য না দিয়েই ঢাকায় ফিরে গেছেন। দিনভর টানটান উত্তেজনার মধ্যে দিয়ে সকালে সড়কপথে হাটহাজারী মাদ্রাসায় আসেন তিনি। তবে দুপুর থেকে চট্টগ্রামের পথে পথে ছাত্রলীগ যুবলীগের শত শত নেতাকর্মীর অবস্থানে পাল্টে যেতে থাকে দৃশ্যপট। ফলে বিকেলের দিকে যে পথে এসেছিলেন সেই পথেই ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা দেন বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নিয়ে বির্তকিত বক্তব্য দেওয়া মামুনুল হক। 

শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী হাটহাজারী পৌরসভা সদরের পার্বতী মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ‘তাফসীরুল কুরআন মাহফিল-২০২০’ এ তথ্য জানান। একই তথ্য জানিয়ে হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল আমীন সিভয়েসকে বলেন, ‘‌‌‌আমরা সকালে আয়োজক কমিটির সাথে বৈঠক করে অনুরোধ করেছিলাম, যাতে মামুনুল হককে বক্তা হিসেবে না রেখে অন্য কোনও আলেমকে রাখেন। পরে তারা আমাদের সেই অনুরোধ রেখেছেন বলে মনে হচ্ছে। কেননা, মাহফিলে সন্ধ্যায় আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী সাহেব জানিয়েছেন, মামুনুল হক সাহেব বক্তব্য রাখবেন না। তাকে ঢাকায় ফেরত পাঠানো হয়েছে।' 

মাহফিলের প্রধান অতিথি হেফাজতের আমির জুনায়েদ বাবুনগরী বলেছেন, ‘‌আমরা শান্তি চাই। আমরা কোনও সংঘাত চাই না। আমাদের আন্দোলন নাস্তিকদের বিরুদ্ধে। আজকের মাহফিলে মামুনুল হক সাহেব প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখার কথা ছিল। উনি আসলেও প্রশাসনের অনুরোধে আমরা তাকে মাহফিলে না এনে ঢাকায় ফেরত পাঠিয়েছি। যখন একটি কথা উঠেছে। সরকারের পক্ষ থেকে, প্রশাসনের পক্ষ থেকে আমাকে অনুরোধ করা হয়েছে, তাকে যাতে মাহফিলে না রাখা হয়। আমরা পরামর্শ করে সিদ্ধান্ত নিলাম, তাকে মাহফিলে আনব না। তবে একথা আমরা বলার আগেই উনার (মামুনুল হক) কাছে এ খবর চলে গেছে। তাই তিনি নিজেও মাহফিলে বক্তব্য রাখতে আগ্রহী নয়। আমরাও যেমন আগ্রহী নয়, এরকম পরিস্থিতিতে মাহফিলে বক্তব্য দেওয়ার জন্য উনিও আগ্রহী নয়। উনি একজন সম্মানী মানুষ, তার সম্মান নিয়ে কেউ কিছু করুক তা আমরা চাই না।’ 

হেফাজতের ঘনিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, চট্টগ্রামের যুবলীগ ছাত্রলীগের আন্দোলন আর প্রশাসনের চাপে বিকেল ৪টার দিকে হাটহাজারী মাদ্রাসা থেকে জুনায়েদ বাবুনগরীর নিজ গাড়িতে করে ফটিকছড়ি পর্যন্ত পৌঁছে দেওয়া হয় মামুনুল হককে। সেখান থেকে তিনি মিরসরাই হয়ে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে উঠে ঢাকার উদ্দেশ্যে চলে যান।  

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নিয়ে মামুনুল হক বক্তব্য দেওয়ার পর থেকে কঠোর সমালোচনা করছেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতারা। বৃহস্পতিবার দুপুরের পর চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সামনে প্রতিবাদ সমাবেশ করেছেন নগর ছাত্রলীগের নেতারা। সমাবেশ থেকে মামুনুল হককে প্রতিহত করার ঘোষণা দেওয়া হয়। পাশাপাশি হাটহাজারীতে উত্তর জেলা ছাত্রলীগও তাকে প্রতিহত করার ঘোষণা দিয়ে মাঠে ছিল দিনভর। 

এদিকে মাহফিলকে কেন্দ্র করে যেকোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে উপজেলা প্রশাসন। শুক্রবার সকাল থেকে হাটহাজারী পৌরসভা ও এর আশপাশের এলাকায় পুলিশের ২৫টি টিম সহ বিপুল সংখ্যক আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মোতায়েন রয়েছে। চট্টগ্রাম বিমান বন্দরসহ নগরীর বিভিন্ন স্থানে সতর্ক অবস্থানে ছিল সিএমপি।

হাটহাজারী পৌরসভা সদরের পার্বতী মডেল সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে গত ২৫ নভেম্বর থেকে তিন দিনব্যাপী ‘তাফসীরুল কুরআন মাহফিল-২০২০’ আয়োজন করেছে ‘আল আমিন সংস্থা’ নামের একটি সংগঠন। প্রতি বছর শীতে সংস্থাটি এই মাহফিলের আয়োজন করে। সংস্থার ব্যানারে হলেও আয়োজকরা হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের নেতাকর্মী ও স্থানীয় আলেমরা এই সংগঠনে রয়েছে।

মাহফিলে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা ছিল বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের নেতা এবং হেফাজতের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হকের। শুক্রবার (২৭ নভেম্বর) এই মাহফিলে প্রধান দুই বক্তার একজন হলেন প্রয়াত শাইখুল হাদিস আল্লামা আজীজুল হক’র পুত্র হেফাজতের নবগঠিত কমিটির যুগ্ন মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক। অন্যজন হলেন মাওলানা জুনাইদ আল-হাবীব। শুক্রবার সমাপনী দিনে প্রধান অতিথি হিসেবে হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরীর উপস্থিত ছিলেন। গত বুধবার ও বৃহস্পতিবার ওই মাহফিলের কার্যক্রম চলছিল বিদ্যালয়ের মাঠে।

বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব এবং বাংলাদেশ খেলাফত যুব মজলিসের কেন্দ্রীয় সভাপতি মাওলানা মামুনুল হক সদ্য ঘোষিত হেফাজতে ইসলামের কমিটিতে যুগ্ম মহাসচিবের পদ পেয়েছেন। নভেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহে রাজধানী ঢাকার বিএমএ মিলনায়তনে ধোলাইপাড়ে জাতির পিতার ভাস্কর্য স্থাপনের বিরোধিতা করে তা অবিলম্বে বন্ধের দাবি তোলেন মামুনুল হক। তার ওই বক্তব্যের পর এখন পর্যন্ত সরকার বা আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে তেমন কোনো প্রতিবাদ লক্ষ করা যায়নি। তবে জেলা পর্যায়ে আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগের নেতারা মামুনুল হকের বিরুদ্ধে কঠোর সমালোচনা করছেন।

ঘিরে রাখা বাড়ি থেকে ৪ জঙ্গির আত্মসমর্পণ

সিরাজগঞ্জের শাহাজাদপুরে উকিলপাড়া এলাকার জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে ঘিরে রাখা বাড়ি থেকে ৪ জনের আত্মসমর্পণের খবর পাওয়া গেছে। এ ৪ জন র‌্যাবের কাছে আত্মসমর্পণ করেছে।

জানা গেছে, শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টার কিছুক্ষণ পরে ওই বাড়ি থেকে বের হয়ে ৪ জন আত্মসমর্পণ করেন। আত্মসমর্পণকারী ব্যক্তিদের মধ্যে একজন পাবনা-সিরাজগঞ্জ জেমএমবির আঞ্চলিক প্রধান বলে র‍্যাব সূত্রে জানা গেছে।

এ অভিযান সফল করতে ঢাকা থেকে র‌্যাবের বিশেষ টিম যোগ দিয়েছে। অভিযান এখনও চলমান রয়েছে।

র‍্যাব সূত্রে জানা গেছে, অভিযান শেষে প্রেস ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে ঘটনার বিস্তারিত গণমাধ্যমকে জানানো হবে।

শুক্রবার ভোরে থেকে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে সিরাজগঞ্জের শাহাজাদপুরের উকিলপাড়া এলাকার ওই বাড়ি ঘিরে রেখেছিল র‌্যাব।

বঙ্গবন্ধু ছাত্র পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক হলেন চট্টগ্রামের আরাফাত

বঙ্গবন্ধু ছাত্র পরিষদ কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে মনোনীত হয়েছেন দীর্ঘদিন ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত থাকা ছাত্রনেতা আব্দুল্লাহ আল মাসুদ (আরাফাত)। ১৯ নভেম্বর বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু ছাত্র পরিষদ কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আসিফ জামান রূপম ও সাধারণ সম্পাদক সাকির মজুমদার এর স্বাক্ষরিত গণমাধ্যমে প্রেরিত এক পত্রের মাধ্যমে বিষয়টি জানানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত, এর আগে বঙ্গবন্ধু ছাত্র পরিষদ চট্টগ্রাম মহানগর শাখার সাবেক সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছিলেন আব্দুল্লাহ আল মাসুদ (আরাফাত)

সাংগঠনিক সম্পাদক মনোনীত করায় সাবেক সফল ছাত্রনেতা, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহজাদা মহিউদ্দিন ভাই এবং বঙ্গবন্ধু ছাত্র পরিষদ কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির উপদেষ্টা, সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সহ সকল নেতৃবৃন্দের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে সাংগঠনিক কার্যক্রমকে গতিশীল করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন।

শিক্ষার্থীদের দাবি আদায়ে অনন্য বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ

করোনা মহামারীর ফলে সৃষ্ট বিপর্যয়ে অর্থনৈতিক ও সামাজিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এমতাবস্থায় নর্দান বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বেশকিছু দাবী নিয়ে আন্দোলনে যেতে বাধ্য হয়। এর আগে গত ২৯ নভেম্বর তারিখ নর্দান বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ সভাপতি আনিসুল ইসলাম সোহেল ও সাধারণ সম্পাদক মাহিদুল ইসলাম আদির স্বাক্ষরিত কয়েক দফা দাবী সম্বলিত একটি স্মারকলিপি বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ এর সভাপতি জাহিদ হোসেন পারভেজ ও সাধারণ সম্পাদক আজিজুল হাকিম সম্রাটের নির্দেশনায় ও উপস্থিতিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্যের নিকট দেয়া হয়। কিন্তু কোনোপ্রকার সুষ্ঠু সমাধান না আসায় শিক্ষার্থীরা আন্দোলন শুরু করে।

এতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনকে আরো বেগবান করার লক্ষ্যে সম্মিলিত বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ আন্দোলনে অংশগ্রহণ করে এবং মুহুর্তেই শিক্ষার্থীদের সাথে নিয়ে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলে৷ আন্দোলনের এক পর্যায়ে কতৃপক্ষ ১২ পার্সেন্ট পর্যন্ত ওয়েভার প্রদান, বিলম্বিত ফি মওকুফ ও রেজাল্টের ভিত্তিতে বৃত্তি প্রদানসহ অন্যান্য দাবীসমূহ মেনে নিতে সম্মত হয়৷ ফলে শিক্ষার্থীরাও সন্তোষ প্রকাশ করার মধ্য দিয়ে আন্দোলনের পরিসমাপ্তি ঘটান। 

আন্দোলনে একাত্মতা প্রসঙ্গে বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি জাহিদ হোসেন পারভেজ বলেন, 'অতীত ধারাবাহিকতায় শিক্ষার্থীদের যৌক্তিক এবং শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে আমরা একাত্মবোধের মাধ্যমে অংশগ্রহণ করেছি। তাদের প্রতিটি দাবী যৌক্তিক এবং কতৃপক্ষ দাবীগুলোর ওপর গুরুত্বারোপ করে আন্তরিকতার সাথেই তা শতভাগ পূরণ করবে বলে আমরা আশা করছি৷ দাবী পূরণে কতৃপক্ষ প্রাথমিকভাবে সম্মতি ও আশ্বাস জানানোই আমরা ধন্যবাদ জানাচ্ছি। ধন্যবাদ জানাচ্ছি নর্দান বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের প্রতিও যারা শিক্ষার্থীদের ন্যায্য দাবী আদায়ে সম্মুখ ভূমিকা পালন করেছে।'

সাধারণ সম্পাদক আজিজুল হাকিম সম্রাট বলেন, 'শিক্ষার্থীদের যেকোনো সমস্যাকে এড্রেস করে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো তা সমাধানের সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা চালাবে এটাই তো স্বাভাবিক৷ কিন্তু অনেক বিশ্ববিদ্যালয়েই করোনা মহামারীর কারণে সৃষ্ট বিপর্যয়ের ফলে বিভিন্ন দাবী ও চাহিদার প্রেক্ষিতে শিক্ষার্থীদের মধ্যে অসন্তোষ স্পষ্ট, যা দুর্ভাগ্যজনক। সেই ধারাবাহিকতায় নর্দান বিশ্ববিদ্যালয়ে সাধারণ শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে নামতে বাধ্য হয়। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সর্বদা শিক্ষার্থীদের স্বার্থ সংরক্ষণ ও আদায়ে পাশে থেকেছে। আজও ব্যতিক্রম হয়নি। পরিশেষে সাধারণ শিক্ষার্থীদের সাথে নিয়ে ছাত্রলীগের কর্মীদের দুর্বার আন্দোলন ও নেতৃত্বের মাধ্যমে দাবী আদায় হয়েছে এবং মানবিক দিক বিবেচনা করে কতৃপক্ষ দাবীসমূহ মেনে নেয়ায় আমরা ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। পাশাপাশি সকল বিশ্ববিদ্যালয়ের কতৃপক্ষদেরও শিক্ষার্থীদের প্রতি আরো বেশি আন্তরিক ও মানবিক হওয়ার আহ্বান জানাই।'

ইতিপূর্বে নর্থ সাউথের সাধারণ শিক্ষার্থীদের আন্দোলনেও দাবি আদায়ে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে সম্মিলিত বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ। পাশাপাশি বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের কতৃপক্ষ এবং ইউজিসির নিকট স্মারকলিপি প্রদানের মধ্য দিয়ে শিক্ষার্থীদের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে কয়েক দফা পেশ করেন তারা।

আকবরকে ধরার ৫০ হাজার টাকা পুরস্কার পাচ্ছেন কে?

সিলেটে পুলিশ ফাঁড়িতে রায়হান হত্যার প্রধান অভিযুক্ত এসআই (বরখাস্ত) আকবরকে ধরতে সহায়তা করেন সিলেটের কানাইঘাটের সাহসী ব্যক্তি রহিম উদ্দিন। আর এ জন্য তাকে দেওয়া হচ্ছে ৫০ হাজার টাকা পুরস্কার।

সোমবার (৯ নভেম্বর) গোলাপগঞ্জের শরীফগঞ্জ ইউনিয়নের কানাডা প্রবাসী মো. জয়নাল আবেদীন জামিল এ পুরস্কার দেয়ার ঘোষণা দেন। ওইদিন তিনি ফেসবুকে লাইভে এসে রহিমকে ৫০ হাজার টাকা পুরস্কার দেওয়ার ঘোষণা দেন।

মো. জয়নাল আবেদীন 'বিশ্ব প্রবাসী শরীফগঞ্জ উন্নয়ন পরিষদ' এর প্রতিষ্ঠাতা আহ্বায়ক।

গত সোমবার (৯ নভেম্বর) দুপুরে কানাইঘাট উপজেলার ডোনা সীমান্ত এলাকা থেকে সিলেটে পুলিশ ফাঁড়িতে রায়হান হত্যার প্রধান অভিযুক্ত এসআই আকবরকে গ্রেফতার করা হয়।

এদিকে, মঙ্গলবার (১০ নভেম্বর) দুপুরে এসআই আকবরকে সিলেটের মহানগর মুখ্য হাকিম আদালতে তোলা হলে শুনানি শেষে বিচারক মো. আবুল কাশেম ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন

মোটরসাইকেলের নিবন্ধন ফি কমছে

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) মোটরসাইকেলের নিবন্ধন ফি কমিয়ে বাজারমূল্যের ১০ শতাংশের নিচে নামানোর একটি প্রস্তাব অর্থ মন্ত্রণালয়ে পেশ করেছে।

সোমবার (৯ নভেম্বর) বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ মজুমদার গণমাধ্যমকে এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বিআরটিএ চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ বলেন, 'মোটরসাইকেলের নিবন্ধন ফি বাজারমূল্যের ১০ শতাংশের নিচে নামিয়ে আনা যায় কিনা সে বিষয় সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে বিআরটিএ প্রস্তাব পাঠিয়েছে। প্রস্তাবটি সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ থেকে পাঠানো হয়েছে অর্থ মন্ত্রণালয়ে। সেখানে অনুমোদনের পর তা কার্যকর হওয়ার কথা রয়েছে।'

গত ১৫ অক্টোবর সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ প্রস্তাবটি অর্থ মন্ত্রণালয়ে পাঠালে সেটি এখন অর্থ মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে।

বিআরটিএর প্রস্তাব অনুযায়ী, ১০০ সিসি ক্ষমতাসম্পন্ন মোটরসাইকেলের নিবন্ধন ফি মোট দামের ৮ দশমিক ৪ শতাংশ এবং ১০০ সিসির বেশি মোটরসাইকেলের নিবন্ধন ফি মোট মূল্যের ৪ দশমিক ৯ শতাংশের মধ্যে রাখা হবে।

আবার বিআরটিএর প্রস্তাব অনুযায়ী, ১০০ সিসির নিচে মোটরসাইকেলের মূল নিবন্ধন ফি ৪২০০ টাকার পরিবর্তে ২০০০ টাকা এবং ১০০ সিসির বেশি ক্ষমতাসম্পন্ন মোটরসাইকেলের মূল নিবন্ধন ফি ৫৬০০ টাকা থেকে কমিয়ে ৩০০০ হাজার টাকা করা হবে।

সড়ক কর, পরিদর্শন ফি এবং নম্বর প্লেট, ডিআরসি, সম্পূরক কর কমিয়ে ১০০ সিসি পর্যন্ত মোটরসাইকেল ৭ হাজার ৫২৯ টাকা এবং ১০০ সিসির বেশি ক্ষমতার মোটরসাইকেলের জন্য নিবন্ধন ফি ৯ হাজার ৮৫২ টাকা করার প্রস্তাব করেছে বিআরটিএ। সে হিসাবে ১০০ সিসির মোটরসাইকেলের নিবন্ধন ফি ২৮ দশমিক ৯০ শতাংশ এবং ১০০ সিসির ওপরে মোটরসাইকেলের নিবন্ধন ফি ২৭ দশমিক ৫১ শতাংশ কমছে।

নূর মোহাম্মদ মজুমদার বলেন, আশেপাশের দেশের তুলনায় আমাদের দেশে মোটরসাইকেলের রেজিস্ট্রেশন ফি বেশি। নিবন্ধন ফি কমাতে বাংলাদেশ মোটরসাইকেল ম্যানুফেকচারার্স এসোসিয়েশন দাবি জানিয়ে আসছিল। এছাড়া জাপান দূতাবাস থেকেও এ বিষয়ে একটি চিঠি পাঠানো হয়েছে।

গত ১৬ অগাস্ট প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিবের সভাপতিত্বে ‘বাংলাদেশ-জাপান যৌথ সরকারি-বেসরকারি অর্থনৈতিক সংলাপ’ অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে মোটরসাইকেলের নিবন্ধন ফি বাজারমূল্যের ১০ শতাংশের মধ্যে রাখার সিদ্ধান্ত হয়। সে সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, বিআরটিএকে মতামত দিতে বলা হয়।

এএসপি আনিসুল হত্যায় ১০ জন রিমান্ডে

রাজধানীর মানসিক হাসপাতালে কর্মচারীদের মারধরে সিনিয়র এএসপি আনিসুল করিমের মৃত্যুর ঘটনায় গ্রেফতার ১০ আসামির প্রত্যেকের ৭ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। 

মঙ্গলবার (১০ নভেম্বর) বিকেলে এএসপি আনিসুল হত্যায় তাদের রিমান্ডের আদেশ দেন আদালত। দুপুরে রিমান্ডের আবেদন করে তাদের আদালতে হাজির করে পুলিশ। শুনানি শেষে আদালত এই আদেশ দেন। 

এর আগে, এসপি আনিসুলকে মারধরের ভিডিও ফুটেজ পর্যালোচনা করে ১০ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। মারধরের ঘটনায় এদের সবার সংশ্লিষ্টতা পাওয়া গেছে। এ তথ্য জানিয়েছিলেন তেজগাঁও জোনের উপপুলিশ কমিশনার হারুন অর রশীদ।

সোমবার (৯ নভেম্বর) রাতে রাজধানীর আদাবরের মাইন্ড এইড নামের একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে এসে হাসপাতাল কর্মীদের মারধরে মৃত্যু হয় বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের (বিএমপি) ট্রাফিক বিভাগের সহকারী কমিশনার মোহাম্মদ আনিসুল করিমের।

লিমনের মুক্তি চান চুয়েট ছাত্রলীগের সাবেক নেতারা

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের সাবেক ছাত্র ও বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সহ-সম্পাদক সাইফুল আলম লিমনের বিরুদ্ধে অস্ত্র ও মারধরের অভিযোগ এনে কারাগারে পাঠানোকে ষড়যন্ত্র হিসেবে দেখছেন চুয়েট ছাত্রলীগের সাবেক নেতারা। তারা দ্রুত সময়ের মধ্যে 'ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা' মামলা দায়েরের প্রতিবাদ এবং তা অবিলম্বে প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন।

সোমবার (১০ নভেম্বর ) রাতে চুয়েট ছাত্রলীগের সাবেক ছাত্রনেতাদের স্বাক্ষরিত প্রেস প্রতিবাদ লিপিতে এ দাবি জানানো হয়।

বিবৃতি প্রদানকারী সাবেক ছাত্র নেতারা হলেনঃ প্রকৌশলী আতাউল গণি, প্রকৌশলী মােঃ নুরুউদ্দীন, প্রকৌশলী দেবাশীষ দাস সৌরভ, প্রকৌশলী যুবায়ের বিন হাশেম, প্রকৌশলী জাহিদ হাসান, প্রকৌশলী কাজী আবেদ হোসেন, প্রকৌশলী প্রণয় বড়ুয়া, প্রকৌশলী যাওয়াদ মুনতাসির, প্রকৌশলী মোসলেহ উদ্দীন, প্রকৌশলী আতিক ইজাজ তমাল, প্রকৌশলী মিজানুল ইসলাম, প্রকৌশলী তানভীর জামাল, প্রকৌশলী তৈয়ব আজিজ তানিম, প্রকৌশলী আবদুল্লাহ আল মামুন, প্রকৌশলী তানভীর ফয়সাল, প্রকৌশলী প্লাবন দত্ত শুভ, প্রকৌশলী নাইব হােসাইন খান, প্রকৌশলী আবদুল্লাহ আল মামুন, প্রকৌশলী অনিক ইসলাম সজীব, প্রকৌশলী অভ্রদ্বীপ পাল, প্রকৌশলী আনিসুর রহমান মজু, প্রকৌশলী শরীফুল ইসলাম শুভ, প্রকৌশলী হাসানুজ্জামান, প্রকৌশলী ফাহিম হােসাইন, প্রকৌশলী রিদুয়ান তানভীর, প্রকৌশলী দেওয়ান নুসরাত অমি।

সমগ্র বাংলা পাতার আরো খবর